‘প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে তারেককে ফেরাতে চায় সরকার’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে সরকার গণতন্ত্রের আতুরঘর ইংল্যান্ডে অবস্থারত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনতে চাইছে। কারণ তাকে হুমকি মনে করছে তারা।

বৃহস্পতিবার (১৯ এপ্রিল) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ফিউচার অফ বাংলাদেশ আয়োজিত ‘গণতন্ত্রহীনতা বনাম জবাবদিহিতা’ শীর্ষক তরুণ প্রজন্মের সঙ্গে মুক্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

খালেদাকে দেশের সবচেয়ে ‘জনপ্রিয় নেত্রী’ দাবি করে বিএনপির মুখপাত্র রিজভী বলেন, তারেক রহমান লন্ডন থেকে দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, এটা সরকার সহ্য করতে পারছে না। তিনি হিংসায়-প্রতিহিংসায় ক্ষতবিক্ষত হয়ে এখন আর্তনাদ করছেন।’

তিনি বলেন, লন্ডন সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জিজ্ঞাসা করেন-দেশে গণতন্ত্র নেই, নাগরিক অধিকার নেই, মানবাধিকার নেই? কিন্তু প্রধানমন্ত্রী এসবের জবাব না দিয়ে বললেন, তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

রিজভী আহমেদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভাবছেন, খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে এতো দমন পিড়ন করছি, নেতাকর্মীদের এতো নির্যাতন করছি, তার পরও বিএনপি এতো ঐক্যবদ্ধ। লন্ডন থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এগুলো শেখ হাসিনা আর সহ্য করতে পারছেন না।

তিনি বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই। এখানে রাতের অন্ধকারে যে কোন যুবক অদৃশ্য হয়ে যায়। গুম করা হয়। কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের তিন জনকে চোখ বেধে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে লন্ডনে সাংবাদিকরা প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করলে এড়িয়ে গিয়েছেন। উত্তর দেননি। বলেছেন তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনা হবে। এখানেই তো তার জালা, এখানেই তো তার ভয় ও বিদ্বেষ।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে তালবাহানা করছে। তিনি চাইছেন ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসা হোক। কিন্তু সরকার সেটা দেবেনা।

চেয়ারপারসনের উপদেস্টা আব্দুস সালাম বলেন, শেখ হাসিনার সময় আছে আর মাত্র ৮ মাস। এর পর তাকে নির্বাচন দিতে হবে। গদি ছাড়তে হবে। জনগন বুঝে গেছে খালেদা জিয়াকে ছাড়া এই দেশকে বাচানোর আর কোন উপায় নেই।

আলোচনায় অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন- ফিউচার অব বাংলাদেশের আহ্বায়ক মো. উজ্জল, সদস্য সচিব শওকত আজিজ, যুগ্ন আহবায়ক মাজেদ বিন হাসান, শাহাদাত হোসেন মিশু, মো. রুবেল মিয়া, মেহেদী কাওসার শাহিন, মো. সোহাগ, মো. মাহাদী হাসান সাদবিনসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও থানার ছাত্রনেতারা।

সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.