হজ গমনেচ্ছু শিক্ষক-কর্মচারিদের ৬৪ কোটি টাকা দিল সরকার

পবিত্র হজ গমনে ইচ্ছুক অবসরপ্রাপ্ত ১ হাজার ৩২৯ বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারিকে অবসর ও কল্যাণ সুবিধার ভাতা হিসেবে ৬৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা দিয়েছে সরকার। অনলাইনে বাটন চেপে শিক্ষক-কর্মচারিদের অর্থ প্রদান অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

সোমবার পলাশীর ব্যানবেইস ভবনে অর্থ প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান থেকে অনলাইনে দেশের পাঁচটি উপজেলায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভাতার সুবিধাপ্রাপ্তদের সাথে কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এসব উপজেলা হচ্ছে সিলেটের বিয়ানীবাজার, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ সদর, রাজশাহীর গোদাগাড়ি ও ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলা।

অবসর ও কল্যাণ সুবিধার ভাতাপ্রাপ্তরা সন্তোষ প্রকাশ করে ভিডিওকলে শিক্ষামন্ত্রীকে জানান, তারা অবসর ও কল্যাণ সুবিধার অর্থ পাওয়ার মেসেজ মোবাইলে পেয়েছেন। কোন ঝামেলা ছাড়াই অনলাইনে অর্থ পাওয়ার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান তারা।

অনলাইন ব্যবস্থায় অবসর ও কল্যাণ ভাতার অর্থপ্রদান এ অনুষ্ঠানে শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক মাহাবুবর রহমান, শিক্ষক-কর্মচারি কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্যসচিব অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু এবং অবসর সুবিধা বোর্ডের সদস্যসচিব অধ্যক্ষ শরীফ আহমদ সাদী বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে হজ্ব গমনেচ্ছু ছাড়াও অন্য ধর্মালম্বী তীর্থ গমনেচ্ছু শিক্ষক-কর্মচারি, মৃত ও গুরুতর অসুস্থ্য শিক্ষকদের কল্যাণ ও অবসর সুবিধার টাকা প্রদান করেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, আগে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারিরা চেকের জন্য মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন ভবনে ঘুরতেন। এখন এই শিক্ষকদের পেছনে এসব ভাতার চেক ঘুরবে। সময়মত আপনারা টাকা পেয়ে যাবেন। অর্থের সীমাবদ্ধতার কারণে এ অর্থ পেতে বিলম্ব হয়। এ সরকার শিক্ষাবান্ধব। শিক্ষক ও শিক্ষার উন্নয়নে নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন সরকার আন্তরিক।

এখন থেকে অনলাইনেই শিক্ষক-কর্মচারিরা অবসর ও কল্যাণ ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবেন উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ভাতার অর্থও অনলাইনে আপনাদের একাউন্টে পৌছে যাবে।

শিক্ষাসচিব সোহরাব হোসাইন বলেন, শিক্ষার সাথে কোন দুর্নীতি বরদাশত করা হবে না। কোন দুর্নীতির খবর পেলে প্রমাণসহ আমাদের কাছে অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সূত্রঃ বিডি প্রতিনিধি

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published.